চাকরির পরীক্ষায় গণিতে ভালো করার উপায়

বাংলাদেশে যতগুলো জব পরীক্ষা আছে তাতে ২৫% গণিতের ‍উপর মার্ক থাকে। তবে যদি এই গণিতে ভালো করা যায় তাহলে একজন নতুন চাকরির প্রার্থীর ক্ষেত্রে পরীক্ষায় টেকা অনেকটা সহজ হয়ে যায়।

আবার অনেকেই প্রশ্ন করে আমি যদি ব্যাংক প্রস্তুতি নেই সে ক্ষেত্রে কি আলাদা পুনরায় গণিত চর্চা করতে হবে? আপনি  পোষ্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন দেখবেন অনেক প্রশ্নের সমাধান পাবেন।

{getToc} $title={চাকরির পরীক্ষায় গণিতে ভালো করার উপায় দেখুন}

তাই এই পোষ্টে আলোচনা করব কিভাবে সহজেই চাকরির পরীক্ষায় গণিতে ভালো করার যায়। এর জন্য আমাদের কিছু উপায় অবলম্বন করতে হবে। চলুন দেখে নেয়া যাক চাকরির পরীক্ষায় গণিতে ভালো করার উপায়।

চাকরির পরীক্ষায় গণিতে ভালো করার উপায়

চাকরির পরীক্ষায় গণিতে ভালো করার উপায়

বিগত সালের প্রশ্ন এনালাইস

আপনি যে সংস্থায় বা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগে আবেদন করেছেন, তার প্রশ্নগুলো আগে ভালো ভাবে সমাধান করুন। তাহলে দেখবেন একটা সুন্দর আইডি দাঁড়িয়ে যাবে যে এবার আপনাকে কোন কোন অধ্যায় বা চ্যাপটার ভালোভাবে আয়ত্ত করতে হবে।

সিলেবাস সম্পর্কে একটা ভালো ধারণা

আপনি যদি বিসিএস কিংবা দেশের দ্বিতীয়, তৃতীয় কিংবা চতুর্থ শ্রেণীর চাকরির আবেদন করে থাকেন তাহলে বিসিএস এর সিলেবাস অনুসরণ করতে পারেন। তবে গণিতের ব্যাসিক যদি আপনার শক্ত থাকে তাহলে যে কোনো গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় থেকে সিলেবাস দেখে দেখে পড়া শুরু করুন।

ব্যাংক জবের ক্ষেত্রে গণিতের প্রস্তুতি

পাশাপাশি যদি ব্যাংক জবের টার্গেট থাকে তাহলে যেই ম্যাথ গুলো বাংলাতে শিখেছেন, সেই ম্যাথগুলো ইংরেজিতে শিখুন,এখানে কেবল ভাষাগত পার্থক্য পাবেন কিন্তু নিয়মের কোনো ব্যবধান পাবেন না।
উদাহরণ- যখন শতকরা শিখবেন তখন চেষ্টা করবেন আগে বাংলা ভার্সন শিখার পড়ে ওই শতকরাই পুনরায় ইংরেজি ভাসরে শিখবেন। তারপর অন্য অধ্যায় যেমন লগ ও সূচক ধরলেন সেটা বাংলা ভার্সনে শেষ করে পড়ে আবার ইংরেজি ভার্সন করুন। তাতে করে আপনার এক ঢিলে দুই পাখি মারা হবে।

নতুন হিসেবে কি কি পড়তে হবে

যদি আপনি একদম নতুন যেমন- এসএসসিতে থাকাকালীন ম্যাথ করেছেন তারপর টানা একটা লম্বা গ্যাব থাকার কারণে হয়তো আর গণিত করা হয়নি তাহলে আপনি ধরে নেন নতুন। সেক্ষেত্রে আপনাকে গণিতের ব্যাসিক জোন স্ট্রোং করতে হবে।
ব্যাসিক জোন স্ট্রোং করতে নিচের অধ্যায় গুলো ধারাবাহিক ভাবে পড়ুন-
  • পাটিগণিতের ক্ষেত্রে: বাস্তব সংখ্যা, ভগ্নাংশ, ল.সা.গু ও গ.সা.গু, ঐকিক নিয়ম শতকরা, লাভক্ষতি, সুদকষা, অনুপাত-সমানুপাত, ধারা ইত্যাদি
  • সূচক ও লগারিদম
  • বীজগণিতে সূত্র, উৎপাদকের বিশ্লেষণ ইত্যাদি
  • জ্যামিতি: রেখা, কোণ, ত্রিভূজ, বৃত্ত, চতুর্ভজ, রম্ভস ইত্যাদি শিখুন।
  • কিছু অধ্যায় আছে যা উচ্চতর গণিতে বিদ্যমান সেগুলো মূলত বিসিএস এর জন্য লাগে যেমন- বিন্যাস সমাবেশ ও সম্ভাবনা অন্যান্য।
আপনার যদি উপরে সব টপিক্স সম্পর্কে যদি ভালো ধারণা থাকে তাহলে আপনি গণিতে  ভালো একটা নাম্বার ক্যারি করতে পারবেন।

ইউটিউব থেকে গণিত শেখা

আপনি ইউটিউবে প্রচুর গণিত পাবেন যারা ব্যাসিক থেকে এডভ্যান্স এমনকি বোর্ড ভিত্তিক বই সমাধান সহ পাবেন। তাই ইউটিউবে সার্চ করে দেখুন। তাছাড়া আপনি চাইলে অনলাইনে মাধ্যমে অনেক স্বনামধন্য গণিত শিক্ষক রয়েছেন যারা জব গণিত করিয়ে থাকে।

আমি কি একা একা বাড়িতে গণিত শিখব?

আপনার বেসিক যদি ভালো থাকে, আপনি যদি অংক দেখলেই বুঝতে পারেন তাহলে বাড়িতে একা একা পড়তে পারেন বা গ্রুপ স্যাডি করতে পারেন।
আর যদি একদম দূর্বল হয়ে থাকেন তাহলে কোনো স্যারের সাহায্য নিন তাতে করে সময় বাঁচবে।

অনুশীলন করা

আপনার কে রীতিমতো গণিত অনুশীলন করতে হবে, আপনি যদি গণিত অনুশীলন না করেন তাহলে ভালো নাম্বার ক্যারি করতে পারবেন না। তাই যদি চাকরির দরকার হয় অবশ্যই আপনাকে কঠোর পরিশ্রমী হতে হবে।
এছাড়াও যদি আপনার আরো কিছু জানার থাকে, তাহলে কমেন্টে জানান, যদি আপনার প্রাভেসির একটা ব্যাপার থাকে তাহলে ইনবক্স করেন জানতে পারেন।

TheSundor

প্রিয় পাঠকবৃন্দ দি সুন্দর এর পক্ষ থেকে আপনাকে জানাই শুভেচ্ছা এবং সালাম আসসালামু আলাইকুম আপনারা আপনি কেমন আছেন? নিশ্চই ভালো আর নতুন নতুন মজার তথ্য পেতে দি সুন্দরের সাথেই থাকুন। youtube linkedin instagram facebook twitter pinterest

Post a Comment

Previous Post Next Post