মেয়েদের জন্য কোন চাকরি ভালো?

বর্তমান বিশ্বে নারী-পুরুষ উভয়েই কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে নিজেদের জীবন সুন্দর করে পরিচালনা করছে। যেখানে নারী-পুরুষ উভয়েই পাচ্ছে সমাধিকার। নেই কোনো চার দেয়ালের সীমাবদ্ধতা। কেবল স্বাধীন আর স্বাধীন। পুরুষের পাশাপাশি নারীদের অবদান কিন্তু কম নয়। তাই আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল তার `নারী' কবিতায় বলেছেন, 

‘বিশ্বে যা কিছু মহান সৃষ্টি চির-কল্যাণ কর, অর্ধেক তার করেছে নারী, অর্ধেক তার নর।’

{getToc} $title={মেয়েদের জন্য চাকরির তালিকা}

মেয়েদের জন্য কোন চাকরি ভালো
মেয়েদের জন্য কোন চাকরি ভালো

তাহলে কেন একজন নারী তার অধিকারকে আদার করে নিবে না। মেয়েদের জন্য কোন চাকরি ভালো কেন তারা ভালো চাকরি করতে পারবেনা। বর্তমানে এখনো অনেক উদাহরণ আছে আমাদের দেশে যারা মেয়ে হয়েও ভালো চাকরি করছে। 

{alertSuccess}আরো পড়ুন: মেহেদি ডিজাইন | সহজ মেহেদি ডিজাইন (সুন্দর সুন্দর)

আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রীয় একজন মেয়ে, আমাদের স্পিকারও একজন মেয়ে, আমাদের প্রথম মেয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীও আছে, তাছাড়া বিভিন্ন কর্মস্থানে এখন মেয়েদের দেখা যায়। আর কথা না বাড়িয়ে আমরা দেখি মেয়েদের জন্য কোন চাকরি ভালো। তবুও আমাদের ইসলামের কথা ভাবতে হবে, ইসলাম কি বলে নারীদের সম্পর্কে তার নিচের লিংকে পড়ুন।

{alertSuccess}আরো পড়ুন: নারীর ঘরের বাইরে কাজ করার ব্যাপারে ইসলামের নির্দেশনা

মেয়েদের জন্য কোন চাকরি ভালো তার ছোট চাকরি তালিকা:

ডাক্তার

ডাক্তার পেশা নারীদের জন্য খুব ভালো, তারা বিশেষ করে নারীদের চিকিৎসা প্রদান করে থাকে, তাতে করে নারী রোগীদের ছেলে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হয় না। 

নার্স

নার্স মূলত নারী এবং পুরুষ উভয়কে সেবা দিয়ে থাকে,এখানেও নারী রোগীদের নার্সরা ভালো সেবা প্রদার করে থাকে।

শিক্ষকতা

শিক্ষকতা নারীদের জন্য আরো একটি সুন্দর পেশা। যেখানে একজন নারী শিক্ষক তার পরিবারকে সময় দিয়েও শিক্ষকতা করতে পারে। যেমন: তারা একটি কিন্ডারগার্টেন শিক্ষক, প্রাথমিক স্কুল শিক্ষক, সহকারী শিক্ষক, সংগীত শিক্ষক হিসেবে নিজেদের স্থাপন করতে পারে।

{alertSuccess}আরো পড়ুন: নীল শাড়ি পরা পিক

ফিটনেস প্রশিক্ষক

একজন নারী একজন ভালো ফিটনেস প্রশিক্ষকও হতে পারে, ব্যায়াম নারী-পুরুষ সকলেরই জন্য প্রয়োজন। ফিটনেস প্রশিক্ষক হিসেবে একজন নারী ভালো ইনকাম করতে পারে।

মনোবিজ্ঞানী

মনোবিজ্ঞানী হিসেবেও নারী নিজের পেশাকে বাছাই করতে পারে। মানুষের বিভিন্ন মনোঃরোগ চিকিৎসার সেবা দিতে পারে। 

বিসিএস ক্যাডার

একজন নারী বাংলাদেশে একজন সিভিল সার্ভিস কর্মী হিসেবেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারে। আর এই বিসিএস ক্যাডার হল বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণীর পেশা। এখানে আপনিও নিজেকে সেট আপ করতে পারেন।

হিসাবরক্ষক

বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে হিসাবরক্ষক হিসেবে কাজ করতে পারেন। হিসাবরক্ষক বলতে হিসাব করা। যা আমরা সহজেই বুঝতে পারছি।

গ্রন্থাগারিক হিসাবে

আপনি চাইলে একজন গ্রন্থাগারিক হিসাবে নিজের ক্যারিয়া গড়ে তুলতে পারেন, অর্থাৎ লাইব্রেরি পরিচালনা করবেন।

সাংবাদিক

বর্তমান সময়ে দেখা যাচ্ছে, বিশ্বে সকল টিভি চ্যানেল, পত্রিকাতে নারীরা অনেক অবদার রাখচ্ছে, যেখানে চাইলে আপনিও তাদের সাথে কাজ করতে পারেন।

কাস্টমার কেয়ারে জব

তাছাড়া আমরা বিভিন্ন সার্ভিস পেতে যখন কাস্টমার কেয়ারে কল দেই আমরা শুনতে পাই নারীদের কণ্ঠ, তার মানে বুঝতেই পারছেন নারীরা কাস্টমার কেয়ারেও জব করে, সেখানে আপনিও করতে পারেন।

বিজ্ঞাপন ব্যবস্থাপক

টিভিতে যা কাগজে অথবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমরা যে সকল বিজ্ঞাপন দেখতে সেখানে একজন নারী বিজ্ঞাপন ব্যবস্থাপক হিসেবে নিজের ক্যারিয়া গড়তে পারে।

সম্পাদক

বিভিন্ন পত্রিকায় সম্পাদক করেও বর্তমানে ভালো সুনাম, টাকা উপার্জন করা যায়। তাইলে আপনিও তাদের দলের একজন হতে পারেন।

আর্থিক পরিচালক

বিভিন্ন আর্থিক প্রতিষ্ঠান করেও নারীরা নিজেদের ক্যারিয়ার গড়তে পারে। যথা- সরকারি বেসরকারি ব্যাংক।

মানবসম্পদ ব্যবস্থাপক

মানবসম্পদ ব্যবস্থাপক করেও নারীরা জীবিকা নির্বাহ করতে পারে।

বিপণন বিশেষজ্ঞ

বিপণন বিশেষজ্ঞ হিসেবেও কাজ করতে পারেন।

আইনজীবী

বর্তমানে আরেকটি জনপ্রিয় পেশা হল আইনজীবী পেশা যেখানে নারীরাও অবদান রাখতে পারে।

ক্রয় এবং বিক্রয় পরিচালকদের বিশ্লেষক

একজন নারী নিজেকে ক্রয় এবং বিক্রয় পরিচালকদের বিশ্লেষক হিসেবেও গড়ে তুলতে পারে।

এছাড়াও আরোও নানা পোষ্টে কাজ করতে পারেন। যেমন: অডিটর, লজিস্টিক শল্যবিদ, anesthesiologists, ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জন,দাঁতের চিকিৎসক, বিক্রয় এজেন্ট, পরিচালক ,গাইড, ডিজাইনার ইত্যাদি

এছাড়াও, একটি স্নাতক শিক্ষা ছাড়াই সৃজনশীল পেশা হিসেবে যে কেউ পছন্দ করতে পারে।

স্নাতক শিক্ষা ছাড়াই সৃজনশীল পেশা

পেইন্টিং

আপনি যে কোন কিছু সুন্দর এবং তার বাস্তবিক রূপ পেইন্টিং করতে পারেন তাহলে এই ক্যারিয়ার টা আপরার জন্য, আপনি অনলাইলে বা অফলাইনেও ভালো ক্যারিয়া এবং জনপ্রিয় অর্জন করতে পারবেন।

গায়ক

সুন্দর কণ্ঠ, মিষ্টি গানের গলা কে না পছন্দ করে, যদি আপনার এই প্রতিভা থাকে তাহলে গায়ক হিসেবে জনপ্রিয় এবং ভালো ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন।

অভিনেত্রী

আপনি যদি খুব সুন্দর এবং স্মার্ট নারী হন, তাহলে আপনি একজন ভালো অভিনেতা হিসেবেও অনেক জনপ্রিয় এবং ভালো ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন।

রান্নাঘর

বিভিন্ন খাবার তৈরী করে বাইরে সেল করা, অন্যকে রান্না শেখানো ইত্যাদি করে। তা আমাদের দেখে নারীরা তাদের বাহারি বাহারি খাবার ফেসবুকের মাধ্যমে সেল দিয়ে থাকে। 

বিক্রয়কর্মী

যে কোন দোকানে বা সপে বিক্রয়কর্মী হিসেবে কাজ করতে পারেন, সেটা অন্যের হওক বা নিজের। বিক্রয়কর্মী হিসেবে আমাদের দেশে অনেক নারীকে দেখা যায়।

ওয়েটার

সাম্প্রতি বড় বড় রেস্টুরেন্টে নারীরা ওয়েটার হিসেবে কাজ করছে, যদি আমাদের দেশে এখনো সচারচর দেখা যায় না কিন্তু ফুটপাতে অনেক নারীকেই দেখা যায় যারা নিজের দোকানে নিজেই ওয়েটার হিসেবে কাজ করছে। চিন্তার কোন কারণ নেই ভবিষ্যৎ নারী ওয়েটার আমাদের দেশেও থাকবে।

বিউটিশিয়ান

স্টাইলিস্ট, চুলের সাজ ইত্যাদি করেও ভালো টাকা রোজগার করতে পারেন।

ফ্যাশান ডিজাইনার

আধুনিক বিশ্বে নারীরা ফ্যাশান ডিজাইনার হিসেবে অনেক অবদান রাখছে, চাইলে আপনিও এই সেক্টরে কাজ করতে পারেন।

মালী

মালী বলতে ফুল গাছ বিক্রি করে, ফুল, ফল বিক্রি করে, শিম, লাউ ইত্যাদি গাছ রোপন করেও ভালো ইনকাম করতে পারেন।

গৃহস্থলি কাজ

হাস-মুরগী, গরু-ছাগল, কোয়েল পাখি পালন, সেলাই কাজ, বাজার থেকে কিছু পণ্য কিনে নিয়ে বাড়ি বাড়ি বিক্রি বা অন্যের কিছু প্রয়োজনীয় জিসিন বিনিময়ে কিনে নিয়েও আপনি ভালো ইনকাম করতে পারেন।

যারা অনলাইলে নিজের ক্যারিয়ার গড়তে চান অর্থাৎ ফিলান্সার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে চান তারা নিচের পেশা গুলো পছন্দ করতে পারেন।

অনলাইনের ক্যারিয়া সমূহ:

ফিলান্সার

ঘরে বসে ছেলে মেয়ে বৃদ্ধ যে কেউ রোজগার করতে পারে, যদি সে অনলাইন নিয়ে অভিজ্ঞ থাকে। ফিলান্সার এর মধ্যে বিভিন্ন ক্যাটাগরি থাকে, তবে আপনি যে বিষয়ে ফিলান্সিং করতে আগ্রহী কেবল সেই কোর্স করে আপনিও ভালো ইনকাম করতে পারেন।

ইউটিউবার

বর্তমানে তরুণ প্রজন্মের মধ্যে ইউটিউব করে অনেক টাকা ইনকাম করছে। তাহলে আপনি কেন পারবেন না আপনিও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ইউটিউবে ভিডিও আপলোড দেন, যে বিষয়ে আপনি অভিজ্ঞ কেবল সেই বিষয়ে কাজ করুন, দেখবেন ধীরে ধীরে আপনিও একজন সফল ইউটিউবার হতে পারবেন।

ব্লগার

ব্লগিং করেও খুব ভালো মানের ইনকাম করতে পারবেন, এখানেও অনেক নারী ব্লগিং করে টাকা ইনকাম করছে।

তাছাড়া নিচে আরো অনেক অনেক সেকশন আছে অনলাইনে ইনকাম করার যেমন: ওয়েব ডিজাইনার, ডিজিটাল মার্কেটার, কন্টেট রাইটার, প্রোগ্রামার ইত্যাদি

পুরুষদের জন্য সবচেয়ে সর্বাধিক জনপ্রিয় পেশাগুলি

এই সময়ের পুরুষদের জন্য সবচেয়ে সর্বাধিক জনপ্রিয় পেশাগুলি হল:

মার্কেটার, আইনজীবী, প্রোগ্রামার, তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ, বিশ্লেষক, expert বিশেষজ্ঞ, ম্যানেজার, ওয়েব ডিজাইনার, বিক্রয় প্রতিনিধি, চিকিৎসক, তাছাড়াও আরোও বিভিন্ন সরকারী চাকরি ইত্যাদি।

{alertSuccess}আরো পড়ুন:ছেলে বাচ্চাদের ফতুয়া ডিজাইন

যদি আপনি উপরের কোনটির সাথে পরিচিত নন তাহলে কমেন্টের মাধ্যমের জিজ্ঞাসা করুন আমরা আপনার উত্তর যত শিগ্রই সম্ভব দেয়ার চেষ্টা করব। তো এবার আপনি যে কাজ করতে আরাম মনে করবে বা যে পেশা আপনার সাবজেক্ট এর সাথে যায় আপনি সেই পেশায় যুক্ত হন আর জীবনে উন্নত সাধন করুন।

TheSundor

প্রিয় পাঠকবৃন্দ দি সুন্দর এর পক্ষ থেকে আপনাকে জানাই শুভেচ্ছা এবং সালাম আসসালামু আলাইকুম আপনারা আপনি কেমন আছেন? নিশ্চই ভালো আর নতুন নতুন মজার তথ্য পেতে দি সুন্দরের সাথেই থাকুন। youtube linkedin instagram facebook twitter pinterest

Post a Comment

Previous Post Next Post